//শাহসূফী হযরত মাওলানা আবদুল জব্বার রাহ. এর ২২ তম ওফাত বার্ষিকী

শাহসূফী হযরত মাওলানা আবদুল জব্বার রাহ. এর ২২ তম ওফাত বার্ষিকী

আজ ২৫ মার্চ ২০২০ বায়তুশ শরফের পীর শাহসূফী হযরত মাওলানা আবদুল জব্বার রাহ. এর ২২তম ওফাত বার্ষিকী। ১৯৯৮ সালের এ দিনে চট্টগ্রাম ধনিয়ালাপাড়াস্থ বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্সের নিজ হুজরা খানায় সকাল ৭.০০ টায় ইন্তেকাল করেন বায়তুশ শরফের প্রধান রূপকার হাদিয়ে যামান শাহসূফী হযরত মাওলানা মোহাম্মদ আবদুল জব্বার (রাহ.)। পরদিন চট্টগ্রাম রেলওয়ে পলোগ্রাউন্ড ময়দানে লক্ষ লক্ষ মোমিন মুসলমানের অংশগ্রহণে স্মরণকালের ঐতিহাসিক বৃহত্তম জানাযা শেষে তাকে কেন্দ্রীয় বায়তুশ শরফ মসজিদের দক্ষিণ পাশের নিজ ফুলবাগানে সমাহিত করা হয়।

আল্লামা শাহ আবদুল জব্বার রাহ. এর নামাজে জানাযায় ছিলো লাখো মানুষের ঢল

তাঁর সমকালে তিনি ছিলেন যুগের অন্যতম আলেমে দ্বীন, পীর-এ কামেল। অরাজনৈতিক মসজিদ ভিত্তিক সমাজসেবার পুরোধা, শীরক-বিদআত-এর বিরুদ্ধে বলিষ্ঠ কণ্ঠস্বর। ইসলামী ব্যাংক, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ও ইসলামী শিক্ষার প্রচার ও প্রসারে নিবেদিত প্রাণ। দুঃস্থ মানবতার সেবায় সদা সক্রিয়।

একজন সফল লেখক ও অনুবাদক হিসেবে তিনি ছোট বড় ২১ টি গ্রন্থ প্রণয়ন করেন। জীবনে ৩৩ বার পবিত্র হজ্বব্রত পালন করেন। তিনি বায়তুশ শরফ আনজুমনে ইত্তেহাদ বাংলাদেশ-এর সাংগঠনিক কার্যক্রম সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে দেয়ার লক্ষ্যে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, বুলগেরিয়া, সৌদি আরব, কুয়েত, কাতার, ওমান, বাহরাইন, ইরাক, সিংগাপুর, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া, ভারত ও পাকিস্তান ব্যাপকভাবে সফর করেন।

এ মহা মনীষী ১৯৩৩ সালের ১লা ফেব্র“য়ারী আপার বার্মার থাংগু জেলার পিনজুলুক রেল স্টেশন সংলগ্ন বাঙ্গালী কলোনীতে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর আব্বা মৌলভী ওয়াছি উদ্দীন (রাহ.) ও আম্মা বেগম ফিরোজ খাতুন (রাহ.)।

Spread the Love :
  • 3.7K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    3.7K
    Shares