//অনৈসলামিক কার্যকলাপ প্রতিরোধে আল্লামা শাহ আবদুল জব্বার রাহ. : প্রসঙ্গ- শাহ পীর আউলিয়া রাহ. এর মাজার
Baitush Sharaf News

অনৈসলামিক কার্যকলাপ প্রতিরোধে আল্লামা শাহ আবদুল জব্বার রাহ. : প্রসঙ্গ- শাহ পীর আউলিয়া রাহ. এর মাজার

পবিত্র আল-কুরআন এর সূরা আলে ইমরান, ১০৪ আায়াতে আল্লাহ তা’আালা বলেন, “তোমাদের মধ্যে এমন একদল হউক যারা কল্যাণের দিকে আহবান করবে এবং সৎকর্মের নির্দেশ দেবে ও অসৎ কর্মে নিষেধ করবে; তারাই সফলকাম”।

বায়তুশ শরফের পীর আল্লামা শাহ আবদুল জব্বার রাহ. শরীয়ত বিরোধী কর্মকান্ডকে কখনো প্রশ্রয় দেন নি। যেখানে সম্ভব হয়েছে তাঁর সামর্থ অনুযায়ী প্রতিরোধ গড়ে তুলেছেন হেকমতের সাথে।

চট্টগ্রামের লোহাগাড়ায় শাহ পীর আউলিয়া রাহ. এর মাজারে তথাকথিত ওরস এর নামে অনুষ্ঠিত হত নাচ-গান, মদ-জুয়া, যেনা-ব্যবিচারসহ শরীয়ত বিরোধী কার্যকলাপ। তিনি স্থানীয় গণ্যমান্য ও বিশিষ্ট ব্যক্তিদের সহযোগিতায় আশির দশকের শুরুর দিকে ইসলাম ও শরীয়ত বিরোধী এসব কর্মকান্ড কঠোর হস্তে দমন করে, সেখানে সিরাতুন্নবী সা. মাহফিল প্রবর্তনের মাধ্যমে আধ্যাত্মিকতার চর্চার প্রাণ কেন্দ্রে পরিণত করেছেন।

আল্লামা শাহ আবদুল জব্বার রাহ. এর সহিত গাউসে পাকের সম্পর্ক প্রকাশ : কুতুবুল আলম হযরত শাহসূফী মাওলানা মীর মোহাম্মদ আখতর ছাহেব রাহ. চট্টগ্রাম শহর থেকে তরিকতের সফরে কুমিরাঘোনা গেলে তাঁর স্নেহের আবদুল জব্বারকে খোঁজ করে এনে নিজ সান্নিধ্যে রেখে দিতেন। এমনই এক সময়ে তিনি হযরত শাহ পীর আউলিয়ার মাজার জিয়ারতে গেলে তাঁর স্নেহের আবদুল জব্বারকেও সাথে নেন। মাজারে গিয়ে দোয়া দরুদ শেষে মুনাজাত করার সময় তিনি বজ্রদীপ্ত কন্ঠে আওয়াজ শুনতে পান “হযরত বড়পীর ছাহেব বলছেন- এক জরুরী এলান, তোমার সাথে যে ছেলেটি দাঁড়ানো আছে সে আমার রূহানী সন্তান, তাঁকে আদর কর ইজ্জত কর”। একথা শুনে পীর ছাহেব অত্যন্ত আদর ও স্নেহে তাঁকে জড়িয়ে ধরে মুখমন্ডলে চুমু খেতে খেতে সিক্ত করেন এবং কাগজ কলম চেয়ে নিয়ে একটি দরূদ শরীফ লিখে দিয়ে ফরমালেন: রোজ এশার নামাজের পর এ দরূদ শরীফ ১০০ বার তেলাওয়াত করবে।

Spread the Love :
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •