//পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী সা. উপলক্ষে সাংবাদিক সম্মেলনে সভাপতির ভাষণ

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী সা. উপলক্ষে সাংবাদিক সম্মেলনে সভাপতির ভাষণ

বায়তুশ শরফ আনজুমনে ইত্তেহাদ বাংলাদেশ, বায়তুশ শরফ মসজিদ এবং বায়তুশ শরফ দরবারের মহান প্রতিষ্ঠাতা কুতুবুল আলম হযরত আলহাজ্ব শাহ সূফী মাওলানা মীর মোহাম্মদ আখতর (রাহ:) ছিলেন সে পবিত্র সংগ্রামের একজন যুগ শ্রেষ্ঠ সিপাহসালার । শরীয়ত ভিত্তিক আধ্যাত্মিকতার বিস্তারে জীবন উৎসর্গকারী এ বীর মুজাহিদ এ দরবারকে কেন্দ্র করে মানুষের হেদায়াতের উদ্দেশ্যে যে সুশৃঙ্খল কর্মতৎপরতা প্রবর্তন করেছিলেন তা তাঁর পরবর্তী উত্তরসূরী,আমাদের হুজুর কেবলা, হাদীয়ে জামান হযরত শাহ সূফি আলহাজ্ব মাওলানা মোহাম্মদ আব্দুল জব্বার সাহেব (রাহ:) এর অক্লান্ত পরিশ্রম ও দূরদর্শী উদ্যোগে সমস্ত বাংলাদেশের সীমানা ছাড়িয়ে বহির্বিশ্বেও প্রসারিত হয়।

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী সা. উদযাপন উপলক্ষে সাংবাদিক সম্মেলনে সভাপতির ভাষণ

সত্যের সৈনিক জাতির কল্যাণে হৃদয় সমর্পিত সম্মানিত সাংবাদিকবৃন্দ, বায়তুশ শরফ আনজুমনে ইত্তেহাদ এর সদস্যবর্গ ও আগত সুধী মণ্ডলী আসসালামু আলাইকুম ওয়ারাহমতুল্লাহে ওবারাকাতুহু।
বছরের সেরা দিন রাহমাতুল্লিল আলামিন মহানবী হযরত মুহাম্মদ সা. এর শুভাগমন দিবস সমাগত প্রায়। এমন পবিত্র মুহূর্তে আমাদের আন্তরিক আহবানে সাড়া দিয়ে মসজিদ বায়তুশ শরফ প্রাঙ্গণে আপনাদের সদয় উপস্থিতির জন্য বায়তুশ শরফ আনজুমনে ইত্তেহাদ বাংলাদেশ এর সদস্যবৃন্দ ও ব্যক্তিগতভাবে আমার পক্ষ হতে আপনাদের প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।

সদয় অবগতির জন্য নিবেদিত হচ্ছে যে, বায়তুশ শরফ আনজুমনে ইত্তেহাদ বাংলাদেশ ও বায়তুশ শরফ দরবার, হাজার বছর ধরে ইসলামী সভ্যতায় লালিত ঐতিহাসিক চট্টল নগরীর বুকে প্রতিষ্ঠিত আধ্যাত্মিক ও ধর্মীয় শিক্ষা-সাধনার একটি শীর্ষ স্থানীয় পবিত্র প্রতিষ্ঠান, যা শরীয়ত ও তরিকতের সুদৃঢ় ভিত্তির উপর প্রতিষ্ঠিত।
স্মরণ করা যেতে পারে যে, ১১৯২ খৃষ্টাব্দে গজনীর সম্রাট মোহাম্মদ ঘোরী তরাইনের দ্বিতীয় যুদ্ধে আজমীর ও দিল্লীর অধিপতি পৃথ্বিরাজকে পরাজিত করে ভারতে তাঁর সেনাপতি কুতুবুদ্দিন আইবেক এর মাধ্যমে মুসলিম শাসন কায়েম করেন। মুসলমানদের রাজত্ব প্রায় ছয়শত বছরের কাছাকাছি স্থায়ী ছিল। এরপরে তাদের পতন শুরু হয়। তাঁরা এসেছিলেন অস্ত্র হাতে এবং তৎকালীন পৃথিবীর আধুনিকতম সমর কৌশল মেধায় ধারণ করে। একই সময়ে ইসলামের ইতিহাসে অমর ব্যক্তিত্ব আধ্যাত্মিক সম্রাট সুলতানুল হিন্দ হযরত খাজা শেখ মঈনুদ্দিন চিশতী (রাহ.)ও ভারতে আগমন করেন মহানবী সা. এর রূহানী নির্দেশ লাভ করে। তিনি এসেছিলেন অসামান্য আধ্যাত্মিক ক্ষমতায় ক্ষমতাবান হয়ে। সুলতানুল হিন্দ এর জীবন কালেই তাঁর পবিত্র হাতে নব্বই হাজার বিধর্মী ইসলাম গ্রহণ করে।

দ্বীনে ইসলাম ও রূহানীয়তের যে রাজত্ব তিনি স্থাপন করেছিলেন, তাঁর কোনদিন আর পতন হয়নি, আজ পর্যন্ত সে রাজত্ব স্বগৌরবে বর্তমান, তার অগ্রযাত্রা কোন সময়ে কোন কারণে ব্যাহত হয়নি, যুগ যুগ ধরে এ পবিত্র সংগ্রাম অপ্রতিহত গতিতে চলছে , চলতে থাকবে।

বায়তুশ শরফ আনজুমনে ইত্তেহাদ বাংলাদেশ, বায়তুশ শরফ মসজিদ এবং বায়তুশ শরফ দরবারের মহান প্রতিষ্ঠাতা কুতুবুল আলম হযরত আলহাজ্ব শাহ সূফী মাওলানা মীর মোহাম্মদ আখতর (রাহ:) ছিলেন সে পবিত্র সংগ্রামের একজন যুগ শ্রেষ্ঠ সিপাহসালার । শরীয়ত ভিত্তিক আধ্যাত্মিকতার বিস্তারে জীবন উৎসর্গকারী এ বীর মুজাহিদ এ দরবারকে কেন্দ্র করে মানুষের হেদায়াতের উদ্দেশ্যে যে সুশৃঙ্খল কর্মতৎপরতা প্রবর্তন করেছিলেন তা তাঁর পরবর্তী উত্তরসূরী,আমাদের হুজুর কেবলা, হাদীয়ে জামান হযরত শাহ সূফি আলহাজ্ব মাওলানা মোহাম্মদ আব্দুল জব্বার সাহেব (রাহ:) এর অক্লান্ত পরিশ্রম ও দূরদর্শী উদ্যোগে সমস্ত বাংলাদেশের সীমানা ছাড়িয়ে বহির্বিশ্বেও প্রসারিত হয়।
আমার পূর্বসূরীরা তাঁদের পবিত্র লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যসমূহকে বাস্তাবায়িত করতে যে সব পন্থা অবলম্বন করেছিলেন তাঁর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো, বছরের সকল ধর্মীয় গুরুত্বপূর্ণ দিনগুলো যথাযোগ্য মর্যদার সাথে উদযাপন করা এবং ঐসব দিনগুলোর ফজিলতসমূহ সর্বসাধারণের কাছে অবগত করানো। এসবের মধ্যে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী সা. উদযাপন ছিল বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ।

প্রথম পর্যায়ে একদিন থেকে ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পেতে পেতে বর্তমানে এটি চারদিনব্যাপী ব্যাপক আকারে প্রতিপালিত হচ্ছে। ৪ দিনব্যাপী অনুষ্ঠিতব্য এ পবিত্র অনুষ্ঠানের কর্মসূচিগুলোর বিস্তারিত বর্ণনা আমাদের প্রতিষ্ঠান কর্তৃক প্রচারিত পুস্তিকার মাধ্যমে ইতোমধ্যেই হয়তো আপনাদের হস্তগত হয়েছে।

কর্মসূচিগুলোর মাধ্যমে সকল মুসলিম জনগণ বিশেষ করে তরুণ সমাজের অন্তরে নবীপ্রেম এবং ইসলাম ও এর নবীর প্রতি আগ্রহ সৃষ্টিই এর মুখ্য উদ্দেশ্য।

এ উদ্দেশ্য সামনে রেখে আগামী ৯ রবিউল আউয়াল হতে ১২ রবিউল আউয়াল অর্থাৎ ১৮ নভেম্বর হতে ২১ নভেম্বর ২০১৮ সাল পর্যন্ত যেসব কর্মসূচি গৃহীত হয়েছে, তার মধ্যে একটি গুরুত্বপূর্ণ অনুষ্ঠান হলো ১১ রবিউল আউয়াল বা ২০ নভেম্বর তারিখে অনুষ্ঠিতব্য গুণীজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠান। এ অনুষ্ঠানে আমরা প্রতি বছর দেশে যারা দ্বীন ও দুনিয়াবী শিক্ষা প্রদান, দুঃস্থ মানবতার সেবা প্রদান এবং সমাজের সার্বিক কল্যাণ সাধনের ন্যায় মহৎ কর্মে অবদান রেখেছেন তাঁদের মধ্য থেকে চারজন গুণীব্যক্তিকে আনুষ্ঠানিকভাবে সংবর্ধনা প্রদান করে থাকি। এ বছর যে চারজনকে সংবর্ধনা দেয়া হচ্ছে তাঁরা হলেন-
১। দ্বীনি শিক্ষার প্রচার-প্রসার, ইলমে হাদীস চর্চা শিক্ষা প্রদানের মাধ্যমে বিশেষ ভূমিকা পালনের স্বীকৃতি স্বরূপ- আলহাজ্ব মাওলানা আ. ন. ম. তাজুল ইসলাম, অধ্যক্ষ, দৌলতগঞ্জ গাজীমুড়া কামিল (এম.এ) মাদরাসা, লাকসাম, কুমিল্লা।
২। প্রকৌশল শিক্ষা, প্রশাসনিক ক্ষেত্রে ও ব্যাংকিং খাতে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন এবং সামাজিক উন্নয়নে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ- ডক্টর ইঞ্জিনিয়ার রশীদ আহমদ চৌধুরী চেয়্যারম্যন, বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংক লিঃ।
৩। আর্তমানবতার সেবা, শিক্ষার সম্প্রসারণ, ইসলামি সংস্কৃতির বিকাশ ও মসজিদ-মাদরাসার খেদমতে অনন্য অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ- আলহাজ্ব মোহাম্মদ আবদুল আউয়াল, চেয়ারম্যান- এম. কে. আর. গ্রুপ, আগ্রাবাদ, চট্টগ্রাম।
৪। চিকিৎসা সেবার মাধ্যমে দুস্থ-মানবতার কল্যাণে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ- ডাঃ মাহমুদুর রহমান, ট্রমা এন্ড অর্থোপেডিক সার্জন, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, লোহাগাড়া, চট্টগ্রাম।

অদ্যকার এ সমাবেশে উপস্থিত সকল সাংবাদিক ভাইদের প্রতি বিনীত নিবেদন, যেন তারা তাঁদের প্রচার মাধ্যমগুলোর মারফতে আমাদের মহৎ কর্মসূচিগুলোর বিস্তারিত বিবরণসমূহ দেশের আপামর জন- সাধারণের মাঝে প্রচার করে আমাদের প্রতি সহযোগিতা ও সহায়তার হাত প্রসারিত করেন।
আপনাদের কর্মবহুল পেশাগত দায়িত্বের মাঝে সময় করে আমাদের আহবানে সাড়া দেওয়ার জন্য অত্র প্রতিষ্ঠান এর সদস্যগণের এবং ব্যক্তিগতভাবে আমার পক্ষ হতে আবারও আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি।
চারদিনব্যাপী আমাদের কর্মসূচি সমূহে উপস্থিত থেকে আমাদের উৎসাহিত করতে আন্তরিক অনুরোধ জ্ঞাপন করছি। পরিশেষে রাহমানুর রাহিম আল্লাহর দরবারে আপনাদের সুস্বাস্থ্য ও শান্তিময় দীর্ঘ জীবন কামনা করে এখানেই শেষ করছি।
রাব্বানা তাকাব্বাল মিন্না ইন্নাকা আনতাছ্ ছামিউল আলীম, ওয়াতুব আলাইনা ইন্নাকা আন্তাত্ তাওয়াবুর রাহিম।

(মাওলানা) মোহাম্মদ কুতুব উদ্দিন
পীর ছাহেব, বায়তুশ শরফ ও
সভাপতি, বায়তুশ শরফ আনজুমনে ইত্তেহাদ বাংলাদেশ

তারিখ: ১৫ নভেম্বর ২০১৮
স্থান: বায়তুশ শরফ ইসলামী গবেষণা প্রতিষ্ঠান 

Spread the Love :
  • 594
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    594
    Shares